সন্ধি (বিস্তারিত আলোচনা)

 

সন্ধি (বিস্তারিত আলোচনা)

দুটি সন্নিহিত বর্নের মিলনের ফলে সন্ধি হয় । সন্ধি ভাষার মাধুর্যতা বাড়িয়ে দেয় । যেমনঃ- পরাধীন = পর + অধীন→ সংস্কৃত স্বরসন্ধি; অন্বয় = অনু + অয়→ সংস্কৃত স্বরসন্ধি; সন্ধি তিন প্রকার; যথাঃ ১)স্বরসন্ধি, ২)ব্যঞ্জন‬ সন্ধি এবং ‪৩)বিসর্গ‬ সন্ধি।
১)স্বরসন্ধিঃ স্বরবর্ণে স্বরবর্ণে যে সন্ধি হয় তাই স্বরসন্ধি ।। যেমন→পরাধীন = পর + অধীন→ সংস্কৃত স্বরসন্ধি;
২)ব্যঞ্জন‬ সন্ধিঃ ব্যঞ্জনবর্ণে ব্যঞ্জনবর্ণে যে সন্ধি হয় তাই ব্যঞ্জনসন্ধি ।। যেমন→দিগন্ত= দিক্ + অন্ত→ব্যঞ্জনসন্ধি
‪৩)বিসর্গ‬ সন্ধিঃ বিসর্গের সাথে স্বরবর্নের বা ব্যঞ্জনবর্ণের যে সন্ধি হয় তাই বিসর্গ‬ সন্ধি ।। যেমন→নিরবধি = নিঃ + অবধি→বিসর্গ সন্ধি

→ See Video
সন্ধির নিয়মঃ- (স্বর সন্ধি)

নাম নিয়ম উদাহরণ
স্বরসন্ধির সুত্র অ/আ + অ/আ = আ সিংহ + আসন =  সিংহাসন
স্বরসন্ধির সুত্র ই/ঈ + ই/ঈ = ঈ সতী + ঈশ = স্‌+অ+ত্‌+ঈ+শ্‌+অ = সতীশ
স্বরসন্ধির সুত্র উ/ঊ + উ/ঊ = ঊ বধূ + উৎসব =  বধূৎসব
স্বরসন্ধির সুত্র অ/আ + ই/ঈ = এ মহা + ঈশ = ম্‌+অ+হ্‌+এ+শ্‌+অ = মহেশ
স্বরসন্ধির সুত্র অ/আ + উ/ঊ = ও বঙ্গ + উপসাগর =  বঙ্গোপসাগর
স্বরসন্ধির সুত্র অ/আ + এ/ঐ = ঐ জনৈক = জন + এক
স্বরসন্ধির সুত্র অ/আ + ঋ = অর্‌ সপ্ত + ঋষি =  সপ্তর্ষি
স্বরসন্ধির সুত্র অ/আ + ও/ঔ = ঔ পরমৌষধ = পরম + ঔষধ
স্বরসন্ধির সুত্র ই/ঈ + ই/ঈ ছাড়া অন্য স্বরবর্ণ = ্য‍্ ন্যূন = নি + ঊন
স্বরসন্ধির সুত্র উ/ঊ + উ/ঊ ছাড়া অন্য স্বরবর্ণ = ্ব অনু + অয় = অন্বয়
স্বরসন্ধির সুত্র ঋ + ঋ ছাড়া অন্য স্বরবর্ণ = ্র্ পিত্রালয় = পিতৃ + আলয়
স্বরসন্ধির সুত্র এ + অন্য স্বরবর্ণ = অয়্‌ নয়ন = নে + অন
স্বরসন্ধির সুত্র ঐ + অন্য স্বরবর্ণ = আয়্‌ গায়ক = গৈ + অক
স্বরসন্ধির সুত্র ও + অন্য স্বরবর্ণ = অব্‌ গবেষণা = গো + এষণা
স্বরসন্ধির সুত্র ঔ + অন্য স্বরবর্ণ = আব্‌ নাবিক = নৌ + ইক


  • → See Video
    সন্ধির নিয়মঃ-(ব্যঞ্জন সন্ধি) Ref:→Wikipidia
    নাম নিয়ম উদাহরণ
    ব্যঞ্জনসন্ধির সূত্র বর্গের প্রথম বর্ণ (ক, চ, ট, ত/ৎ, প) + স্বরবর্ণ

    = বর্গের তৃতীয় বর্ণ (গ, জ, ড/ড়, দ, ব)

    ষড়ঋতু = ষট্‌ + ঋতু
    ব্যঞ্জনসন্ধির সূত্র বর্গের প্রথম বর্ণ + বর্গের পঞ্চম বর্ণ

    = বর্গের প্রথম বর্ণ বদলে সেই বর্গেরই পঞ্চম বর্ণ হয়

    মৃন্ময় = মৃৎ + ময়
    ব্যঞ্জনসন্ধির সূত্র ত/দ + জ/ঝ = জ্জ/জ্ঝ বিপজ্জনক = বিপদ + জনক
    ব্যঞ্জনসন্ধির সূত্র ত/দ + চ/ছ = চ্চ/চ্ছ উচ্ছেদ = উৎ + ছেদ
    ব্যঞ্জনসন্ধির সূত্র ত/দ + ল = ল্ল তল্লিখিত = তদ্‌ + লিখিত
    ব্যঞ্জনসন্ধির সূত্র ম + স্পর্শবর্ণ (ক-ম) = ম বদলে ং হয়,

    অথবা যেই বর্গের স্পর্শবর্ণ সেই বর্গেরই পঞ্চম বর্ণ হয়

    সংগীত/সঙ্গীত = সম্‌ + গীত
    ব্যঞ্জনসন্ধির সূত্র ম + অন্তঃস্থ বর্ণ (য, র, ল, ব)/ উষ্মবর্ণ (শ, ষ, স, হ)

    = ম বদলে ং হয়

    বশংবদ = বশম্‌ + বদ
    ব্যঞ্জনসন্ধির সূত্র স্বরবর্ণ + ছ = চ্ছ পরিচ্ছেদ = পরি + ছেদ
    ব্যঞ্জনসন্ধির সূত্র ত/দ + হ = দ্ধ উদ্ধত = উৎ + হত
    ব্যঞ্জনসন্ধির সূত্র ত-বর্গীয় বর্ণ (ত, থ, দ, ধ) + শ = চ্ছ উচ্ছ্বাস = উৎ + শ্বাস
    ব্যঞ্জনসন্ধির সূত্র শ/ষ + ত = ষ্ট দৃষ্টি = দৃশ্‌ + তি
    ব্যঞ্জনসন্ধির সূত্র শ/ষ + থ = ষ্ঠ ষষ্ঠ = ষষ + থ

Follow us

Don't be shy, get in touch. We love meeting interesting people and making new friends.

Most popular

Most discussed